1. rafiqulislamnews7@gmail.com : Rafiqul Islam : Rafiqul Islam
  2. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud :
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ১১:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিবচরে জমে উঠেছে পশুর হাট, পছন্দের শীর্ষে মাঝারি আকারের দেশি গরু যাত্রীদের চাপ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়কে, বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ শিবচরে প্রতিবন্ধী স্বামীকে টাকা দিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ শিবচরে সরকারী বালু বিক্রির অভিযোগ প্রভাবশালী মহলের বিরুদ্ধে শিবচরে এক্সপ্রেসওয়ে পার হতে গিয়ে বৃদ্ধের মৃ*ত্যু শিবচরে খামারে আগুন, ১৩ টি গরু ও সাড়ে ৩ হাজর মুরগি পুড়ে ছাই শিবচরে মৎস্যজীবীদের মাঝে ছাগল বিতরন শিবচরে কৃষকদের মাঝে পারিবারিক পুষ্টি বাগানের বীজ সার ও অন্যান্য উপকরণ বিতরণ রাজৈরে জমি নিয়ে বিরোধ, বড় ভাইয়ের মারধরে ছোট ভাইয়ের মৃ*ত্যু*র অভিযোগ শিবচরে ইউপি চেয়ারম্যানসহ তিনজনের ওপর হামলা

প্রাকৃতিক দুর্যোগে যেসব দোয়া পড়বেন-shibcharnews24

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১২ এপ্রিল, ২০২১, ১১.০৭ এএম
  • ৭০১ জন সংবাদটি পড়েছেন।

ডেস্ক রিপোর্টঃ

যে কোনো বিপদ মুসিবত আসে আল্লাহ তা আলার পক্ষ হতে। দুর্যোগে আল্লাহ তাআলার কাছে আশ্রয় লাভের শ্রেষ্ঠ মাধ্যম হচ্ছে দোয়া এবং রোনাজারি করা। কেননা আল্লাহ তাআলা হলেন মানুষের সর্বশ্রেষ্ঠ আশ্রয়দাতা। তাছাড়া দোয়া ও রোনাজারি আল্লাহ তা আলার কাছে অনেক প্রিয় স্বতন্ত্র ইবাদতও বটে।

হাদিসে প্রবল বৃষ্টি ঝড়ো হাওয়া, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্প এবং প্রবল বাতাসসহ সব ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে মুক্ত থাকার অনেক দোয়া ও আমল বর্ণিত আছে। এ দোয়াগুলো পড়ে নিজের জন্য এবং ঘূর্ণিঝড়সহ সব দুর্যোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য দোয়া করা উচিত।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বৃষ্টির ক্ষতি থেকে বেঁচে থাকতে এ দোয়া পড়তেন-
اَللَّهُمَّ حَوَالَيْنَا وَ لَا عَلَيْنَا- اَللَّهُمَّ عَلَي الْأَكَامِ وَ الْجِبَالِ والْاُجَامِ وَالظِّرَابِ وَالْأَوْدِيَةِ وَمَنَابِتِ الشَّجَرِ

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা হাওয়াইলানা ওয়া লা আলাইনা; আল্লাহুম্মা আলাল আকামি ওয়াল ঝিবালি ওয়াল উঝামি ওয়াজ জিরাবি ওয়াল আওদিয়াতি ওয়া মানাবিতিশ শাজারি।

অর্থ : হে আল্লাহ! আমাদের আশে-পাশে বৃষ্টি বর্ষণ কর। আমাদের ওপরে করিও না। হে আল্লাহ! টিলা, পাহাড়, উচ্চভূমি, মালভূমি, উপত্যকা এবং বনাঞ্চলে বৃষ্টি বর্ষণ কর।’ (বুখারি)

বৃষ্টিসহ সব প্রাকৃতিক দুর্যোগে যেসব দোয়া পড়বেন তাহলো-

বৃষ্টি দেখলে যে দোয়া পড়বেন
اَللَّهُمَّ اِنِّىْ أَعُوْذُبِكَ مِنْ شَرِّ مَافِيْهِ
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা ইন্নি আউজুবিকা মিন সাররি মা ফিহি।’ (বুখারি)
অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে এ মেঘের যত অনিষ্টতা আছে তা থেকে আশ্রয় চাই।’

মেঘের গর্জনে পড়ার দোয়া
হাদিসের বর্ণনায় এসেছে, ‘মেঘের গর্জন শুনলে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কুরআন মাজিদের একটি আয়াত পড়তেন।
হজরত আব্দুল্লাহ ইবন যুবাইর রাদিয়াল্লাহু আনহু যখন মেঘের গর্জন শুনতেন তখন কথা বলা বন্ধ করে দিতেন এবং কুর`আন মাজীদের এই আয়াত তিলাওয়াত করতেন-

سُبْحَانَ الَّذِىْ يُسَبِّحُ الرَّعْدُ بِحَمْدِهِ وَالْمَلَائِكَةُ مِنْ خِيفَتِهِ
উচ্চারণ : ‘সুবহানাল্লাজি ইউসাব্বিহুর রাদু বিহামদিহি ওয়াল মালাইকাতু মিন খিফাতিহি।’ (মুয়াত্তা)
অর্থ : ‘পবিত্র সেই মহান সত্তা প্রশংসা যিনি পানিভরা মেঘ উঠান। মেঘের গর্জন তার প্রশংসা সহকারে তাঁর পবিত্রতা বর্ণনা করে এবং তার ফেরেশতারাও তাঁর ভয়ে কম্পিত হয়ে তাঁর তাসবিহ পাঠ করে।’

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেছেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মেঘের গর্জন শুনলে বা বিদ্যুতের চমক দেখলে সঙ্গে সঙ্গেই এই দোয়া করতেন-

اَللَّهُمَّ لَا تَقْتُلْنَا بِغَضَبِكَ وَ لَا تُهْلِكْنَا بِعَذَابِكَ وَ عَافِنَا قَبْلَ ذَلِكَ
উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা লা তাক্বতুলনা বিগাদাবিকা ওয়া লা তুহলিকনা বিআজাবিকা, ওয়া আ’ফিনা ক্ববলা জালিকা।’ (তিরমিজি)
অর্থ : ‘হে আমাদের প্রভু! তোমার ক্রোধের বশবর্তী হয়ে আমাদের মেরে ফেলো না আর তোমার আজাব দিয়ে আমাদের ধ্বংস করো না। বরং এর আগেই আমাদেরকে ক্ষমা ও নিরাপত্তার চাদরে আবৃত করো।’

ঘূর্ণিঝড়ে পড়ার দোয়া
বান্দার জন্য বাতাস আল্লাহ তাআলার অনেক বড় নেয়ামত। কারণ মানুষ বাতাস ছাড়া বাঁচতে পারে না। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘তোমরা বাতাসকে গালি দিও না। তবে যদি তোমরা একে তোমাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে দেখতে পাও, তবে এ দোয়া করবে-
اللهُمَّ إِنِّي أَسْأَلُكَ خَيْرَهَا، وَخَيْرَ مَا فِيهَا، وَخَيْرَ مَا أُرْسِلَتْ بِهِ، وَأَعُوذُ بِكَ مِنْ شَرِّهَا، وَشَرِّ مَا فِيهَا، وَشَرِّ مَا أُرْسِلَتْ بِهِ
উচ্চারণ :আল্লাহুম্মা হাওয়াইলানা ওয়া লা আলাইনা; আল্লাহুম্মা আলাল আকামি ওয়াল ঝিবালি ওয়াল উঝামি ওয়াজ জিরাবি ওয়াল আওদিয়াতি ওয়া মানাবিতিশ শাজারি।

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমি আপনার নিকট এর মঙ্গল, এর মধ্যকার মঙ্গল ও যা নিয়ে তা প্রেরিত হয়েছে, তার মঙ্গলসমূহ প্রার্থনা করছি এবং আমি আপনার আশ্রয় প্রার্থনা করছি এর অমঙ্গল হতে, এর মধ্যকার অমঙ্গল হতে এবং যা নিয়ে তা প্রেরিত হয়েছে, তার অমঙ্গলসমূহ হতে।’

ঝড় তুফানে পড়ার দোয়া
اَللَّهُمَّ حَوَالَيْنَا وَلَا عَلَيْنَا
উচ্চারণ : `আল্লাহুম্মা হাওয়ালাইনা ওয়ালা আলাইনা।’ (বুখারি)
অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আমাদের থেকে ফিরিয়ে নাও, আমাদের ওপর দিয়ো না।’

ভূমিকম্পসহ যাবতীয় দুর্যোগ থেকে বাঁচার দোয়া
لَا حَوْلَ وَلَا قُوَّةَ اِلّا بِاللهِ
উচ্চারণ : ‘লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লাবিল্লাহ।’ (বুখারি ও মুসলিম)

لَا إِلَٰهَ إِلَّا أَنتَ سُبْحَانَكَ إِنِّي كُنتُ مِنَ الظَّالِمِينَ
উচ্চারণ : ‘লা ইলাহা ইল্লা আংতা সুবহানাকা ইন্নি কুংতু মিনজ জ্বালিমিন।’ (সুরা আম্বিয়া : আয়াত ৮৭)

বিপদাপদ থেকে আত্ম-রক্ষায় প্রতিদিনের দোয়া
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রত্যেহ সকাল এবং সন্ধ্যায় নিন্মোক্ত দোয়াটি পড়বে; তাকে কোনো বিপদাপদ, বালা-মুছিবত স্পর্শ করবে না-
بِسْمِ اللهِ الَّذِيْ لَا يَضُرُّ مَعَ اسْمِهِ شَيْءٌ فِيْ الأَرْضِ وَلَا فِيْ السَّمَاءِ وَهُوَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْم
উচ্চারণ : ‘বিসমিল্লাহিল লাজি লা ইয়াদূররু মাআস মিহি শাইয়ুন ফিল আরদি ওয়ালা ফিস সামিই ওয়াহুয়া সামিয়ুল আলিম।’ (তিরমিজি, ইবনু মাজাহ, মিশকাত)

পরিশেষে:
বৃষ্টিসহ সব বিপদকালীন সময়ে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর শিখানো দোয়া ও আমল করার পাশাপাশি বেশি বেশি তাওবা ও ইসতেগফার করা উম্মতে মুহাম্মাদির জন্য আবশ্যক পালনীয়।

মুসলিম উম্মাহর উচিত প্রবল বৃষ্টিপাতসহ ঘূর্ণিঝড়, ঝড়ো বাতাস, প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ সব ধরনের দুর্যোগে এ দোয়াগুলোর মাধ্যমে আল্লাহ তাআলার নিকট আশ্রয় লাভে রোনাজারি করা।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2022
Don`t copy text!